বাংলাদেশে টাকা আয় করার apps - প্রতিদিন ২৫০-৫০০+ টাকা ইনকাম

অনলাইন ইনকাম

বাংলাদেশ আয়তনের তুলনায় জনসংখ্যা বেশি এবং দিন দিন বেকারত্বের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। এই কনটেন্টটিতে বাংলাদেশের টাকা আয় করার apps বা টাকা ইনকাম করার অ্যাপ এবং ঘরে বসে অর্থ উপার্জন প্রতিদিন ২৫০-৫০০+ টাকা আয় করার সিক্রেট টিপস থাকছে। এমন কিছু কাজ যেগুলো আপনি চাইলেই করতে পারবেন।

image

সূচিপত্র: বাংলাদেশে টাকা আয় করার apps

বাংলাদেশে টাকা আয় করার apps এর তালিকা

অর্থ/টাকা আয় করার জন্য বাংলাদেশে অনেক অ্যাপস রয়েছে। এবং সেই সকল অ্যাপস গুলো ব্যবহার করে মানুষ দিন দিন প্রতারিত হচ্ছে। আপনারা যেন প্রতারিত না হয়ে হালাল পদ্ধতিতে টাকা আয় করতে পারেন সে সকল অ্যাপস গুলোর নাম

  • Webtalk
  • fanfare
  • Love taka
  • facebook
  • youtube
  • twitter

ফেসবুক এবং ইউটিউব ছাড়া অন্যান্য অ্যাপস গুলোতে টাকা উইথড্রো করা একটু কঠিন তবে ফেসবুক এবং ইউটিউব আমাদের কাছে জনপ্রিয় হওয়ায় ঝামেলা একটু কম মনে হয়।

আরো পড়ুন: ফেসবুকে লাইক দিয়ে টাকা ইনকাম

এছাড়াও আপনারা লেখালেখি করে প্রথমে প্রতিদিন ২৫০-৫০০ টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবেন। এবং জেনারেল রাইটার টিম থেকে এলিট রাইডার টিমে যোগ দিলে ৫০০+ টাকা আয় করতে পারবেন। বিস্তারিত (লেখালেখি করে প্রতিদিন ২৫০-৫০০ টাকা ইনকাম) নিচে আলোচনা করা হয়েছে।

বাংলাদেশে টাকা আয় করার apps Webtalk

Webtalk অ্যাপস এর সাথে আপনারা হয়তো অনেকেই অপরিচিত। এই অ্যাপটি থেকে আপনারা প্রায়ই ৬+ উপায়ে টাকা আয় করতে পারবেন যেমন রেয়ার্ডস, 5 লেভেল বোনাস, রেফার, login, ভিডিও এবং এড দেখে টাকা আয় করা সম্ভব।

এই অ্যাপসটি প্রায় ফেসবুকের মত আপনারা ব্যবহার করলেই বুঝতে পারবেন। বাংলাদেশে টাকা আয় করার apps Webtalk থেকে টাকা পাওয়ার জন্য প্রথমে আপনাদেরকে Webtalk অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হবে।

একাউন্ট তৈরি করার জন্য আপনার ছবি এবং নাম সহ কিছু তথ্য এবং অ্যাপস থেকে অর্থ/টাকা উইথড্র করার জন্য পেওনিয়ার বা পেপাল এর মাধ্যমে উইড্র করতে পারবেন। সে জন্য আপনার যেকোনো অ্যাকাউন্ট Webtalk অ্যাপে কানেক্ট করে দিতে হবে। এই সমস্ত প্রসেস গুলো জানার জন্য ইউটিউব থেকে একটা ভিডিও দেখে নিলে সমস্ত কাজ করতে পারবেন। ইউটিউবে সার্চ করবেন Webtalk একাউন্ট খোলার নিয়ম তাহলে অনেক ভিডিও আপনারা পেয়ে যাবেন।

বাংলাদেশে টাকা আয় করার apps fanfare

fanfare অ্যাপস টি বাংলাদেশর অনেকে ব্যবহার করছে। এই অ্যাপসটিতে টাকা পাওয়ার জন্য যেকোনো ব্র্যান্ডের প্রোডাক্ট এর ভিডিও বানিয়ে সেই ব্যান্ডকে ট্যাগ করে ভিডিওটি আপলোড করবেন। আপনার ট্যাগ করা ভিডিও যদি সেই ব্যান্ডের কাছে এপ্রুভ হয় তাহলে আপনি পয়েন্ট পাবেন এবং সেই পয়েন্ট দিয়ে fanfare অ্যাপ এর মাধ্যমে বিভিন্ন প্রোডাক্ট কিনতে পারবেন। fanfare অ্যাপস সরাসরি টাকা প্রদান করেনা। টাকা প্রদান না করলেও আপনারা fanfare অ্যাপের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় অনেক প্রোডাক্ট ক্রয় করতে পারবেন।

আরো পড়ুন: ফ্রিল্যান্সিং ডিজিটাল মার্কেটিং কি?

fanfare অ্যাপ থেকে এই সুযোগ সুবিধা পাওয়ার জন্য গুগল প্লে স্টোর থেকে fanfare অ্যাপটি ডাউনলোড করুন এবং facebook অথবা gmail অ্যাকাউন্ট দিয়ে ভেরিফাই করে লগইন করে নিন। এরপরেও বুঝতে সমস্যা হলে ইউটিউব থেকে একটি টিউটোরিয়াল দেখে নিন।

বাংলাদেশে টাকা আয় করার apps Love taka

যে সকল অ্যাপে খুব সহজেই টাকা আয় করা যায় সে সকল অ্যাপ বেশি দিন মার্কেটপ্লে টিকে থাকে না। আমি জানিনা Love taka অ্যাপসটি কতদিন চলবে তবে এই অ্যাপসটির মাধ্যমে আপনি অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। কোনো টাকা ইনভেস্ট করা লাগবে না। আপনাকে Love taka অ্যাপসটি ইন্সটল করে নিতে হবে এবং বেশ কয়েকটি মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারবেন।

image

স্পিন করে টাকা আয়, অংক করে, অ্যাড দেখে, মুভি দেখে আরও বেশ কিছু অপশন রয়েছে টাকা আয় করার Love taka apps এর মাধ্যমে।

এছাড়াও বেশ কিছু জনপ্রিয় ওয়েবসাইট আছে সেগুলো সম্পর্কে টাকা আয় করার কিছু মাধ্যম জেনে নেই।

জনপ্রিয় apps facebook, youtube, twitter

ফেসবুক এবং ইউটিউব প্রাই আমাদের সকলের কাছে পরিচিত একটি সোশ্যাল ওয়েবসাইট। এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে মানুষ হাজার হাজার টাকা উপার্জন করছে। যেমন বিভিন্ন রকমের কনটেন্ট তৈরি করে, বিভিন্ন প্রোডাক্ট প্রচারণার মাধ্যমে, ক্রয় বিক্রয় ইত্যাদি।

আরো পড়ুন: ফেসবুক থেকে টাকা আয় করার উপায়

যেহেতু facebook youtube এবং twitter এই সোশ্যাল মিডিয়া ওয়েবসাইট গুলোতে মিলিয়ন মিলিয়ন ইউজার সেজন্য এই ওয়েবসাইট গুলোকে নিয়ে নতুন করে কিছু বলতে চাচ্ছি না। তবে টাকা ইনকাম করার অ্যাপ এই ওয়েবসাইট গুলো হতে পারে বাংলাদেশে টাকা আয় করার সেরা apps. আপনাকে জাস্ট বুদ্ধি খাটিয়ে পয়েন্টগুলো রিসার্চ করে বের করতে হবে।

লেখালেখি করবে প্রতিদিন ২৫০-৫০০ টাকা ইনকাম

টাকা আয় করার জন্য আপনি যদি ২৪ ঘণ্টায় সর্বনিম্ন তিন ঘণ্টা সময় বের করতে পারেন। তাহলে আপনি টাকা আয় করতে সক্ষম। এবং যত বেশি সময় কাজ করবেন তত বেশি টাকা আয় করতে পারবেন। আপনাদের অনেকের মনে প্রশ্ন কি কাজ করতে হবে আমাদের উত্তর: লিখালিখির কাজ করতে হবে। কিভাবে করবেন কি কাজ করতে হবে সমস্ত কিছু আপনাকে হাতে কলমে শিখিয়ে দেওয়া হবে।

আমাদের R it firm এ লেখালেখি বা আর্টিকেল রাইটিং করে টাকা আয় করার জন্য যেগুলো প্রয়োজন

  • প্রতিদিন সর্বনিম্ন একটানা তিন ঘণ্টা প্লাস সময়
  • শিক্ষা যোগ্যতা সর্বনিম্ন ssc পরীক্ষায় উত্তীর্ণ
  • একটি জিমেইল একাউন্ট এবং cv
  • একটি স্মার্ট ফোন অথবা ল্যাপটপ
  • কাজ করার মন মানসিকতা এবং ধৈর্য

এখন আপনি যদি আমাদের R it firm এ কাজ করতে আগ্রহী হয়ে থাকেন তাহলে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। ১০০% গ্যারান্টি আপনি আমাদের আর আইটি ফার্মে কাজ করলে প্রতারিত হবেন না। এবং পরবর্তীতে R it firm এর আর্টিকেল রাইটারদের জন্য আরো কাজের সুযোগ রয়েছে, যেমন: গ্রাফিক্স ডিজাইন, ওয়েব ডেভেলপিং, ভিডিও এডিটিং, ডাটা এন্ট্রি ইত্যাদি।

আপনার যদি কাজের প্রতি আগ্রহ থাকে এবং নিজের স্কিল ডেভেলপ করে সততার সাথে টাকা আয় করতে চান তাহলে R it firm এর উচ্চ বেতনে পার্মানেন্ট চাকরির সুযোগ রয়েছে।

আগ্রহী প্রার্থীগণ আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন।

যোগাযোগ লিংক

শিক্ষিত বেকার ব্যক্তিগণ অবসর সময় অতিক্রম করছেন তারা অন্তত একবার আমাদের সাথে কাজ করে দেখুন টাকা আয় করা সম্ভব। আপনাকে এমন কিছু দিতে হচ্ছে না যাতে আপনি ক্ষতিগ্রস্ত হবেন, বরং বসে না থেকে কাজ করে টাকা আয় করে বেকারত্ব দূর করা সম্ভব এবং আর আইটি ফার্ম একটি নির্ভরযোগ্য প্রতিষ্ঠান।

আইনি সহায়তা, প্রথমে কাজ করার পূর্বে মনে অনেক প্রশ্ন কাজ করে যেমন: কি কাজ, টাকা কি পাবো? কত টাকা পাবো, কতক্ষণ কাজ করা লাগবে, ইত্যাদি। আপনারা R it firm এ কাজ করুন, যদি কাজের পারিশ্রমিক আপনারা না পেয়ে থাকেন তাহলে পুলিশ প্রশাসন এর মাধ্যমে আইনি সহায়তা নিতে পারবেন।

প্রতারণা থেকে নিজে বাঁচুন অন্যকে বাঁচান

অসংখ্য ছেলে মেয়েরা ফ্রিল্যান্সিং শিখে টাকা আয় করতে ব্যর্থ হচ্ছে এবং অনেকে টাকা আয় করার জন্য বিভিন্ন মাধ্যম খুঁজছে এর মাঝেই অনেকেই প্রতারণার শিকার হচ্ছে।

কোথাও কাজ করার পূর্বে নিজের বিবেককে জিজ্ঞেস করুন, আমি এই কাজটি করে টাকা আয় করতে পারবো কি? সহজেই যদি টাকা আয় করা সম্ভব হতো তাহলে অনেকেই অনেক সম্পদের মালিক হয়ে যেত।

আরো পড়ুন: গ্রামে বিজনেস আইডিয়া - টপ বিজনেস আইডিয়া

সেজন্য নিজে হালাল অর্থ উপার্জন করুন এবং অন্যকে অর্থ আয় করতে সাহায্য করুন। এবং যে সকল ব্যক্তিগণ অনলাইনে আয় করতে ব্যর্থ হচ্ছেন তারা সঠিক প্রতিষ্ঠানের কাছে প্রশিক্ষণ নিয়ে কাজ করেন ইনশাআল্লাহ আপনি কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে সফল হবেন। আপনারা অনেকেই জানেন পরিশ্রম সফলতা চাবিকাঠি।

উপসংহার -শেষ কথা

বাংলাদেশে টাকা আয় করার apps এবং প্রতিদিন ২০৫+ টাকা আয় করার ১০০% সঠিক গাইডলাইন দেওয়া হয়েছে। আপনারা কাজ করবেন কি করবেন না সম্পূর্ণ আপনাদের উপর নির্ভর করছে। আপনারা যারা টাকা আয় করতে ইচ্ছুক তাদের জন্য শুভকামনা রইল।

ধন্যবাদ-Thanks

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

আর আইটি ফার্মের নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url