প্রতিদিন মুখের যত্ন

মেয়েদের লাইফ স্টাইল

প্রতিদিন মুখের যত্ন বলতে আমরা বুঝি আমরা দিনে কি করব, রাতে কি করব? আমার ত্বকের ব্যাপারে কি কি খেয়াল রাখা উচিত ইত্যাদি। আমরা জানবো (প্রতিদিন মুখের যত্ন) কি করে ত্বকের সৌন্দর্য ধরে রাখা যায় এবং সঠিক গাইডলাইন গুলো।

image

একদিন বা 24 ঘন্টায় আমরা কি কি করব তা পর্যায়ক্রমে ধাপে ধাপে দেওয়া হয়েছে। চেষ্টা করছি সহজভাবে ত্বকের যত্নের বিষয়গুলো উপস্থাপন করার, আশা করি আপনাদের বুঝতে সহজ হবে। সম্পূর্ণ কনটেন্টটি পড়লে প্রতিদিন মুখের যত্ন সম্পর্কে পরিপূর্ণ একটি ধারণা লাভ করবেন। এবং ভালো একটা ফলাফল পাবেন. ইনশাআল্লাহ।

সূচিপত্র: প্রতিদিন মুখের যত্ন - Daily facial care

সকালে প্রতিদিন মুখের/ত্বকের যত্ন

(প্রথমে সকাল থেকে শুরু করা যাক) সকালে ঘুম থেকে উঠে ফ্রেশ হওয়াটা জরুরী! বিশেষ করে যারা স্ক্রিন কেয়ার বিষয়ে সচেতন তারা চিন্তা করে ফেসওয়াশ নাকি ক্লিনজার দিয়ে মুখ পরিষ্কার করব। আপনি আপনার ত্বকের সাথে ম্যাচ করে এরকম যেকোনো প্রোডাক্ট ব্যবহার করতে পারেন তবে অবশ্যই আপনাকে ফেসওয়াশ অথবা ক্লিনজার দিয়ে মুখমণ্ডল পরিষ্কার করে নিতে হবে।

আরো পড়ুন: ব্রণের জন্য কোন ফেসওয়াশ ভালো

অনেকেই না জেনে বুঝে মুখমণ্ডল পরিষ্কার করার সময় সাবান ব্যবহার করে। সাবানে এক ধরনের অ্যাসিড থাকে সেটা মুখমন্ডলের ত্বকের জন্য ক্ষতিকর। (ত্বকের উজ্জ্বলতা প্রকাশে বাধা সৃষ্টি করে) সেজন্য মুখমন্ডলে সাবান ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন***। এবং মুখের ত্বক ছাড়া শরীরের অন্যান্য বাকি জায়গায় সাবান ব্যবহার করুন।

ফ্রেশ হওয়ার পর স্কুল কিংবা কলেজ অথবা অফিস যেখানে আপনার প্রয়োজন যাওয়ার আগে খাবার গ্রহণ করুন। কেননা খাবার আপনার মুখের/ত্বকের যত্নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

মুখের/ত্বকের যত্ন খাবার তালিকা

নিজের সুস্থতা বজায় রাখতে এবং ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধি জন্য বেশ কিছু খাবার রয়েছে যে খাবারগুলো গ্রহণ করলে আশা করা যায় আপনি ভালো ফলাফল পাবেন। এই খাবারগুলো সকল শ্রেণীর মানুষের জন্য উপকারী। যারা ঘরে কাজ করে এবং ঘরের বাইরে কাজ করে সকলের জন্য।

কলা শসা গাজর খেজুর, আঙ্গুর
কিসমিস দুধ মধু পাকা/কাঁচা পেঁপে,

এই সকল খাবার গুলো আপনাকে একসাথে খেতে হবে এমনটা নয়। আপনার চাহিদা অনুযায়ী একটি থেকে দুইটি আইটেম সকালে খাবার তালিকায় রাখুন। তবে কলা, শসা, এবং খেজুর এগুলো থেকে একটু বেশি ভালো রেজাল্ট পাওয়া যায়।

এই খাবারগুলো গ্রহণের পর আপনি যে রেজাল্টটা পাবেন, এটা কোন পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া নেই একেবারেই ন্যাচারাল হেলদি। খাবার পরিমাণ, আপনার চাহিদা অনুযায়ী খাবেন।

আরো পড়ুন: দৌড়ানোর উপকারিতা

প্রতিদিন মুখের/ত্বকের যত্নের জন্য তেলে ভাজা খাবার যেমন: বেগুনি, পেঁয়াজি, সিঙ্গারা, পরোটা ইত্যাদি। এই সকল খাবার এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করবেন। এবং আপনার পছন্দের খাবার হলে চেষ্টা করবেন অল্প পরিমাণে তেলুক জাতীয় খাবার গ্রহণ করা। কেননা তেলেভাজা খাবার ত্বকের জন্য খুব একটা উপকারী না।

পানি***

ত্বকের জন্য পানি খুবই গুরুত্বপূর্ণ আপনারা যতটা সম্ভব পানি খাবেন। এবং সকালে ফ্রেশ হওয়ার পর খালি পেটে এক থেকে দেড় গ্লাস হালকা কুসুম পানি খাবেন। এই অভ্যাসটি আপনার ত্বকের সুস্থতার জন্য অনেক কার্যকর।

সানস্ক্রিন ব্যবহারের সময়/নিয়ম

আপনি যখন বাইরে কোথাও যাওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন ঠিক সে সময় বাইরে বের হওয়ার আগে সানস্ক্রিন ব্যবহার করবেন। এতে সূর্যের ক্ষতিকর রশি থেকে আপনার ত্বক সুরক্ষিত থাকবে। সূর্যে আলো/তাপ সকাল ৯ টা থেকে বিকাল ৩ টা পর্যন্ত ত্বকের জন্য একটু বেশি ক্ষতিকর প্রভাব পড়ে। এই সময় যদি আপনাদের বাইরে বের হওয়ার প্রয়োজন হয় তাহলে আপনারা চেষ্টা করবেন সাদা বা হালকা রঙের পাতলা কাপড় ব্যবহার করার।

আরো পড়ুন: দাঁতের যত্ন কিভাবে নিবেন?

আপনারা অনেকেই জানতে চায় রান্না করার সময় কি? সানস্ক্রিন ব্যবহার করব। রান্না করার সময় সানস্ক্রিন ব্যবহার করার প্রয়োজন নেই। রান্নার কাজ সমাপ্ত করে মুখমণ্ডল ধুয়ে নিবেন তাহলেই যথেষ্ট, তবে সাবান ব্যবহার করবেন না। আপনার ত্বকের সাথে ম্যাচ করে এরকম যেকোনো ফেসওয়াশ ব্যবহার করবেন দিনে দুই থেকে তিনবার।

ত্বকের যত্নে ফেসিয়াল?

বিভিন্ন সময় আপনারা পার্লারে গিয়ে ফেসিয়াল করে থাকেন। ত্বকের যত্নে পার্লারে গিয়ে ফেসিয়াল করা উচিত না। কেননা ত্বকে বিভিন্ন রকমের সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে। আপনারা চেষ্টা করবেন বাড়িতে ঘরোয়া পদ্ধতিতে ত্বকের যত্ন নেওয়ার। তাছাড়াও নিজে সচেতন থেকে প্রতিদিন মুখের যত্ন নিলে আলাদাভাবে ফেসিয়ালের প্রয়োজন পড়বে না।

অন্যান্য খুঁটিনাটি বিষয় (মুখের/ত্বকের যত্ন) যেগুলো প্রয়োজন

প্রতিদিন মুখের যত্ন বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টগুলো উপস্থাপন করা হয়েছে, এগুলোর সাথে আরো যে বিষয়গুলো আপনারা খেয়াল রাখবেন।

স্নান বা গোসল, ভালো খাবার, নিয়মিত পরিষ্কারকরণ, সূর্যের আলো থেকে সচেতন, ধূমপান, এবং ঘুম।

ঘুম ত্বকের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। চেহারার সৌন্দর্য ধরে রাখতে ঘুমের বিকল্প নেই বলা যায়। আপনার চেষ্টা করবেন গভীর রাত্রি না করে ঘুমিয়ে যাওয়ার। এই একটি কাজে আপনি কন্টিনিউ করলে আপনার চেহারায় অনেক ভালো ফলাফল দেখতে পাবেন ইনশাআল্লাহ।

আরো পড়ুন: মানুষকে আকৃষ্ট করার উপায়

স্নান বা গোসল আপনারা চেষ্টা করবেন নিয়মিত গোসল করার এতে করে শারীরিক এবং মানসিকভাবে একটা ফ্রেশ এনার্জি কাজ করে। এবং হাসিখুশি থাকার চেষ্টা করবেন, যারা হাসিখুশি থাকে তাদেরকে দেখতে অনেক সুন্দর স্মার্ট লাগে। আপনি চাইলে আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে (রাগান্বিত এবং মুচকি হাসি) দুই ভাবেই নিজেকে পরীক্ষা করতে পারে।

উপসংহার

আপনারা যারা সৌন্দর্য বৃদ্ধি এবং ত্বকের সৌন্দর্য ধরে রাখতে চান তাদের জন্য এই কনটেন্টটিতে গুরুত্বপূর্ণ information - তথ্য দেওয়া হয়েছে। আশা করা যায় এ সকল নিয়মগুলো পালন করলে আপনি নিজেকে আপনার প্রিয়জনদের কাছে সুন্দরভাবে উপস্থাপন করতে পারেন, ইনশাআল্লাহ।

ধন্যবাদ-Thanks

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

আর আইটি ফার্মের নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url