ব্যাকলিংক কি - লিংক বিল্ডিং কি

ডিজিটাল মার্কেটিং

প্রায় আমাদের সকলেরই ওয়েবসাইট আছে সেটার নিজস্ব একটা লিংক আছে যেটাকে আমরা বলে থাকি ইউ, আর, এল, এর পরিপূর্ণ নাম ( ইউনিফর্ম রেসোর্স লোকেটর ) কে ব্যাকলিংক তৈরি করার মাধ্যমে বিশ্বের আনাচে কানাচে পৌঁছে দিতে পারি। এই পৌঁছে দেওয়া মাধ্যম হলো লিংক বিল্ডিং বা ব্যাকলিংক লিংক তৈরি করা। আপনাদের জন্য এই পোস্টটিতে থাকছে ব্যাকলিংক তৈরি করা, ব্যাকলিংক কি এবং লিংক বিল্ডিং করে ডলার উপার্জনের কিছু গুরুত্বপূর্ণ টিপস।

image

আপনারা যারা ব্যাকলিংক কি তা জানতে চান বা লিংক বিল্ডিং করে অর্থ উপার্জন করতে চান তাহলে পোষ্ট টি আপনার জন্য। একজন স্টুডেন্ট লিংক বিল্ডিং এর কাজ করে মাসে এক লাখ টাকা উপরে উপার্জন করছে আপনিতো মাসে ৫০ হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবেন। নিচে পয়েন্ট আকারে দেওয়া হল মনোযোগ সহকারে পয়েন্টগুলো পড়বে।

পেজ সূচিপত্র ঃ ব্যাকলিংক কি | ব্যাকলিংক তৈরি করা। লিংক বিল্ডিং কি

ব্যাকলিংক কি ? লিংক বিল্ডিং কি ? উদাহরণসহ

ব্যাকলিংক কি আমি বলব এক কথায় ব্যাকলিংক তৈরি করা মানে পোস্টার লাগানো। ধরুন আপনার একটা ওয়েব সাইটের যে ডোমেইনটা আছে বা আপনার পোস্টের যে একটা ঠিকানা আছে যার মাধ্যমে পোস্ট টিকে খুঁজে পাওয়া যায় সেটা একটা URL যেমনঃ https://www.ritfirm.com

এখানে ritfirm.com এটা একটি প্রতিষ্ঠানের ঠিকানা এখানে প্রবেশ করলে তাদের প্রতিষ্ঠান সার্ভিসগুলো আপনি জানতে পারবেন। আপনার প্রয়োজনে তাদের থেকে সার্ভিস গ্রহণ করতে পারবেন যদি তারা সেই সার্ভিসটি প্রদান করে থাকে। এতে আপনার কাছে তাদের সার্ভিস প্রদানের মাধ্যম দিয়ে তাদের অর্থ উপার্জন হবে।

ধরুন আপনার ব্লগার ওয়েবসাইট আছে আপনি অবশ্যই চাইবেন আপনার ওয়েবসাইটে অনেক অনেক ভিজিটর আসুক তাই কি না ? অবশ্যই আপনার ওয়েবসাইটের ভিজিটর আসলে আপনার অনেক টাকা ইনকাম হবে।

আরো পড়ুন: সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন কি?

কিন্তু এত ভিজিটর কি ভাবে আসবে? কিভাবে মানুষ জানতে পারবে আপনার একটি ওয়েবসাইট আছে? আপনি পোস্ট করলেই কি অনেক মানুষের কাছে পৌঁছে যাবে? উত্তর আমি বলবো না । অনেক মানুষের কাছে আপনার ওয়েবসাইট পৌঁছে দিতে একজন এক্সপার্ট মানুষের প্রয়োজন যে লিংক বিল্ডিং এর কাজ করে। এতক্ষণে আপনি অবশ্যই ধারণা পেয়ে গেছেন ব্যাকলিংক সম্পর্কে।

আপনি আমি যে কোন কিছু  করি সেটা সম্পর্কে আগে স্বচ্ছ ধারণা থাকতে হবে এটা একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়

ব্যাকলিংক কি? ফেইসবুক , ইউটিউব এর একটি উদাহরণ

আপনাদেরকে আরো একটি উদাহরণ দিয়ে বলে আরও সুন্দরভাবে বুঝতে পারবেন। গ্রামে বা শহরে অবশ্যই পোস্টার লাগাতে দেখেছেন। ধরুন ফেসবুক নামের একটা শহর আছে ইউটিউব নামের একটা শহর আছে এই শহর গুলোর আনাচে-কানাচে আপনাকে পোস্টার লাগাতে হবে । আপনার কাছে সুন্দর সুন্দর ডিজাইনের আকর্ষণীয় অ্যাট্রাক্টিভ বিভিন্ন কোয়ালিটির মানসম্মত ঘড়ি পাওয়া যায় মানুষের যখন জানতে পারল তখন তারা আপনার কাছে ঘড়ি ক্রয়ের জন্য অর্ডার করবে তখন আপনার বিক্রি বেশি হবে এবং লাভ বেশি করতে পারবে।

অনেক কোম্পানি তাদের ওয়েবসাইট বা প্রোডাক্ট প্রচারের জন্য শ্রমিক চাই, যারা ব্যাকলিংক তৈরী বা লিংক বিল্ডিং এর কাজ জানে তাদেরকে দিয়ে কাজ করিয়ে নেয় ১০০ ডলার ২০০ ডলার ৩০০ ডলার একেকজনের একেক রকম ডিমান্ড। আপনারা ফাইবার একাউন্ট গিয়েছে চেক করে নিতে পারেন লিংক বিল্ডিং করে কে কত টাকা চার্জ নেয়।

ব্যাকলিংক তৈরি করা বা লিংক বিল্ডিং করে কে কত টাকা নেই তা জানতে fiver.com ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে link building লিখে সার্চ দিন ইনশাআল্লাহ জানতে পারবেন।

ব্যাকলিংক তৈরি করা শিক্ষার জন্য গুরুত্বপূর্ণ কিছু টিপস

আপনি অল্প কিছু টেকনিক এবং কিছু অর্থ ইনভেস্ট এর মাধ্যমে সফলতা নিয়ে আসতে পারবে ইনশাল্লাহ।
  • একটি ল্যাপটপ বা কম্পিউটার
  • ইন্টারনেট কানেকশন
  • ধৈর্য
  • প্রশিক্ষণ হিসেবে
    • গুগোল
    • ইউটিউব
  • বেশি বেশি টেকনিক অবলম্বন
  • সততা
গাইডলাইন হিসেবে আপনাদের কে ব্যাকলিংক কি সেই সম্পর্কে কিছু ধারণা দেওয়ার চেষ্টা রেখে নিচে আলোচনা করা হয়েছে।

লিংক সম্পর্কে স্বচ্ছ ধারণা

লিংক বলতে, ডোমেইন নেম / ইউ আর এল / ওয়েবসাইট নেম / ল্যান্ডিং পেজ / একই কথা এটাকে আমরা বিভিন্ন নামে বলতে পারি যেমনঃ https://www.youtube.com/watch?v=EMJbCn5RYIs&t=561s এটা URL এটা কে বিভিন্ন নামে বলা যায়। এইরকম যত হাজার হাজার কোটি কোটি লিংক আছে সবগুলোই এক এক টা লিংক।

https://www.ritfirm.com ধরুন এটা আপনার মূল ওয়েবসাইট এখানে আপনার ১০০০ পোস্ট পাবলিস্ট করা আছে এই ১০০০ পোষ্টের আলাদা আলাদা লিংক আছে প্রত্যেক পোষ্টের জন্য একটি করে লিংক আছে তাহলে আপনার মূল ওয়েবসাইটের একটা লিংক আর ১০০০  পোস্টের জন্য ১০০০ লিংক =১০০১ টা লিংক। একইভাবে যতগুলো ওয়েবসাইট আপনি ভিজিট করবেন সবগুলো একটি করে লিঙ্ক আছে। আশা করি এখন থেকে আপনাদের লিংক চিনতে বা বুঝতে আর অসুবিধা হবে না। লিং সম্পর্কে আপনাদের ধারণা ক্লিয়ার করতে পেরেছি বলে আশা করি।

আরো পড়ুন: CPA ডিজিটাল মার্কেটিং কি?

আপনাদেরকে অতিরিক্ত দুটি লিংকের কথা বলি কেননা আপনারা ব্যাকলিংক তৈরি করা শিখবেন। বায়ারদের সাথে কথা বলার সময় আপনাদের জানা দরকার। ১.ইন্টারনাল লিংক ২. এক্সটার্নাল লিংক।  ইন্টার্নাল লিংক যখন একটি পেজ থেকে অপর পেজে যাই সেটা যদি একই ওয়েবসাইটের হয়ে থাকে সেটা ইন্টার্নাল লিংক। আর যদি একটা লিংক একটা ওয়েবসাইটের থেকে অন্য ওয়েবসাইটে চলে যায় তাহলে সেটাকে আমরা বলব এক্সটার্নাল লিংক।

ডুফলো লিংক কি ? আর নো ফলো লিংক কি?

আপনি যখন লিংক বিল্ডিং নিয়ে কাজ করব তখন আপনার জানা দরকার লিংক সম্পর্কে এবং আপনি যখন লিংক বিল্ডিং নিয়ে কাজ করবেন তখন বায়াররা আপনাকে বলবেন আমার এই ল্যান্ডিং পেজ টা নিয়ে ব্যাকলিংক তৈরি করুন বা ইউ আর এল টানিয়ে ব্যাকলিংক তৈরি করুন তখন আপনি বুঝতে না পারলে সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে লিংক সম্পর্কে পোস্ট এর বিভিন্ন জায়গায় আলোচনা করা হবে যাতে আপনারা মনে রাখতে পারেন কেননা লিংক নিয়ে তো আমাদের কাজ।

আরো পড়ুন: ফ্রিল্যান্সিং V/S ডিজিটাল মার্কেটিং

ডুফলো লিংক কোন লিংক এর উপর যখন আপনারা মাউস পয়েন্টার নিয়ে যাবেন তখন সেখানে হাতের মত একটা চিহ্ন আসবে এবং সেখানে ক্লিক করবেন তখন সেই লিংক এর ভেতর প্রবেশ করতে পারবেন কিংবা স্মার্টফোন ব্যবহার করার সময় হাত নিয়ে যাবেন তখন সেখানে ক্লিক করলে সেই লিংক এর ভেতর প্রবেশ করতে পারবে।

নো ফলো লিংক টা ডুফলো লিংক এর উল্টো নো ফলো লিংক এ এ ক্লিক করলে কোথাও যাবে না।

ইনবাউন্ড লিংক কি? আর আউট বাউন্ড লিংক কি?

ইনবাউন্ড লিংক , আপনি ফেসবুকে আছেন সেখানে ভিডিও দেখছেন পিকচার দেখছেন চ্যাটিং করছেন একসময় আপনার বন্ধু আপনাকে ফেসবুকে লিংক মেসেজ করল ব্যাকলিংক কি সেখান থেকে আপনি অন্য একটি ব্লগ ওয়েবসাইটে চলে গেলেন এই যে আপনি ফেসবুক থেকে ব্লগ ওয়েবসাইটে চলে গেলেন এবং ব্লগে প্রবেশ করে সেখানকার তথ্য একসেপ্ট করলেন এটাই ইনবাউন্ড লিংক

আউট বাউন্ড লিংক , ধরুন আপনি একটি ব্লগে ব্যাকলিংক কি তা জানার চেষ্টা করছেন সেই ওয়েবসাইট থেকে যখন অন্য কোন ওয়েবসাইটে ব্যাকলিংক কি তা জানার জন্য চলে যাবেন তখন আগের ব্লগ থেকে অন্য কারণ ব্লগ সাইটে চলে যাওয়া টাই হচ্ছে আউট বাউন্ড লিংক।

অ্যাংকর টেক্স কি?

আপনাদেরকে একটি উদাহরণ দিন বোঝানোর চেষ্টা করি। আমি এখানে লিখলাম লিংক বিল্ডিং কি এখানে চাপুন এখানে চাপুন লাকাটির উপর চাপ দিলে একটি ওয়েবসাইটে আপনাকে নিয়ে যাবে কিন্তু এখানে চাপুন মার্ক চিহ্ন ওখানে একটা লিংক আছে লেখাটির উপর চাপ দিলে লিংক বিল্ডিং কি সেই ইউ আর এল টি চলে আসবে।

এখানে চাপুন চিহ্ন লেখাটি অ্যাংকর টেক্সট। লেখাটিতে যে লিংক দেওয়া আছে সেটিতে একটি  ইউ আর লিংক যুক্ত করা অ্যাংকর টেক্সট।

লিংক বিল্ডিং কি ভাবে তৈরি করে?

ধরুন দারাজ থেকে আপনাকে তাদের একটি টি-শার্ট লিংক বিল্ডিং করতে দিয়েছে এখন আপনাকে লিংক বিল্ডিং করতে হবে। আপনাদের কি মনে আছে পোস্টার লাগানোর কথা বলেছিলাম আবারো বলছি ফেসবুক নামের একটা শহর আছে যেখানে অনেক মানুষের সমাগম তাদের ওয়েবসাইটে গিয়ে কমেন্ট সেকশনে আপনি দারাজ এর পক্ষ থেকে কমেন্ট করলেন আপনারা যারা কম দামে গুণগতমানে টি-শার্ট কিনতে চান তারা এই লিঙ্কে প্রবেশ করুন।

আরো পড়ুন: স্ক্রিনশট থেকে URL তৈরি

দারাজ আপনাকে লিংক বিল্ডিং করতে দিয়েছে এখন আপনি ফেসবুকে, ইউটিউবে, প্রত্যেকের প্রোফাইলের ছবিতে ভিডিওতে অডিও তে গিয়ে গিয়ে তাদের কমেন্টে সেকশনে জানিয়ে দিচ্ছেন আপনারা যারা টি-শার্ট কিনতে চান সুন্দর সুন্দর তারা এই লিঙ্কে প্রবেশ করুন ঠিক যেমন দেওয়ালে জায়গায় জায়গায় আমরা পোস্টার লাগায় তেমন তাদের ওয়েবসাইটে মানুষ কমেন্ট সেকশনে আপনার টি-শার্টের কমেন্ট দেখে দারাজের ওয়েব সাইটে প্রবেশ করুন তখন দারাজে কাস্টমার বৃদ্ধি পাবে এটাই লিংক বিল্ডিং। ছোট্ট একটি উদাহরণ দিয়ে বোঝানোর চেষ্টা করলাম। এটা একেবারে বেসিক উদাহরণ।

ব্যাকলিংক তৈরি করা কয়েকটি রুলস

  • ব্যাকলিংক তৈরি করা সময় যেই ওয়েবসাইটে কমেন্ট করছেন সেই ওয়েবসাইটের ভিজিটর কম নাকি বেশি সেটা খেয়াল রাখতে হবে।
  • লিংক বিল্ডিং করার জন্য আপনাকে যে ইউ আর এল টা কোম্পানি দিয়েছে সেই ইউ আর এল দেওয়ার আগে আপনাকে কিছু লিখতে হবে
  • ইউ আর এল বসানোর আগে আপনাকে এমন কিছু লিখতে হবে যাতে কাস্টমার প্রোডাক্ট কিনতে আগ্রহ পোষণ করে।
  • যতগুলো সাইডে আপনি লিঙ্ক বিল্ডিং করবেন মনে রাখতে হবে আপনার প্রডাক্ট কের সাথে যেন মিল থাকে।
  • উদাহরণঃ যেই সাইড গুলো নেই মানি ব্যাগ বিক্রি হয় সেসব সাইডে গিয়ে মানিব্যাগ বিক্রির লিংক বিল্ডিং করবে

লিংক বিল্ডিং আর ব্যাকলিংক এর মধ্যে পার্থক্য ?

আপনি যখন লিংক বিল্ডিং করবেন তখন আপনি বলবেন আমি লিংক বিল্ডিং করেছি আর বায়াররা বলবে আমার এতটা ব্যাকলিংক তৈরি হয়েছে একটা জিনিস শুধু বোঝার ক্ষেত্রে যেমন, আপনাদেরকে বলি আমি একটি দোকানে শার্ট  ক্রয় করতে গেলাম শার্ট ক্রয় করলাম। আমি বলব আমি একটি  শার্ট ক্রয়  করেছি দোকানদার বলবে আমি একটি শার্ট বিক্রি করেছি। বায়ারদের কথা বোঝার জন্য এগুলো জানা আমাদের দরকার।

মেনুয়াল লিংক বিল্ডিং এবং  অটো লিংক বিল্ডিং

আপনি যখন লিংক বিল্ডিং এ কাজ করবেন তখন বায়াররা আপনাকে বলতে পারে আমি ম্যানুয়াল লিংক বিল্ডিং নেব বা অটো লিংক বিল্ডিং নিব। ম্যানুয়াল লিংক বিল্ডিং হচ্ছে হাতে টাইপিং করা আর অটো লিংক বিল্ডিং অ্যাপস এর মাধ্যমে অটোমেটিক হাজার হাজার লিংক তৈরি করে।
যেমনঃ জমিতে হাতে স্যার ছিটানো এটা ম্যানুয়ালি আর ড্রোনের মাধ্যমে জমিতে স্প্রে করা এটাতো মানুষে করছেন ড্রোনের মাধ্যমে করা হচ্ছে তাই এটা অটো।

কতভাবে লিংক বিল্ডিং করা যাবে?

  • ব্লগপোস্ট 
  • ফর্ম পোস্টিং
  • আর্টিকেল পোস্টিং
  • অ্যানসারপোস্টিং
  • কুয়ারা পোস্টিং
  • প্রেস রিলিজ পোস্টিং
  • এরকম অনেক সাইডে আমরা লিংক বিল্ডিং করতে পারি

ব্যাকলিংক তৈরি করে লাখ টাকা উপার্জন

আপনারা যারা লিংক বিল্ডিং করে মাসে লাখ টাকা উপার্জন করতে চান তাদেরকে জানাই অভিনন্দন আপনি ইচ্ছে করলেই লাখ টাকা ইনকাম করতে পারেন সেই জন্য আপনাদেরকে কিছু টিপস বলে দেওয়া হয়েছে ।

আরো পড়ুন: ডিজিটাল মার্কেটিং এ কি কি শেখানো হয়।

এবং বোঝানোর চেষ্টা করেছি আপনারা ইউটিউব, গুগলে সার্চের মাধ্যমে নিজেকে প্রস্তুত করে নিতে পারবেন প্রথমে হয়তোবা একটু খারাপ লাগবে ধৈর্য্য ধরুন লক্ষ্য স্থির করুন সামনের দিকে এগিয়ে যায় ইনশাল্লাহ পারবেন।

শেষ কথা

আমি ব্যক্তিগতভাবে আপনাদেরকে উদ্দেশ্য করে বলতে চাই ব্যাকলিংক এর কাজ করে নিজের বেকারত্ব দূর করতে পারবেন এবং এই কাজটি করতে করতে আরো অনেক কাজের আপনি সন্ধান পেয়ে যাবেন যেগুলো হয়তোবা আপনাকে আরও একধাপ এগিয়ে নিয়ে যাবে।

ধন্যবাদ-Thanks

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

আর আইটি ফার্মের নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url