ডিজিটাল মার্কেটিং a to z

ইনফরমেশন টেকনোলজি it

ডিজিটাল মার্কেটিং a to z হলো ইন্টারনেট, মোবাইল ফোন এবং অন্যান্য ডিজিটাল প্লাটফর্ম ব্যবহার করে প্রকাশ, প্রচার, এবং বিপণনের মাধ্যমে পণ্য বা পরিষেবা বিক্রি করা। এটি আধুনিক সময়ে ব্যবহৃত একটি উন্নয়নশীল বিপণন পদ্ধতি ডিজিটাল মার্কেটিং a to z আলোচনা।👇

image
ডিজিটাল মার্কেটিং a to z

পেজ সূচিপত্র: ডিজিটাল মার্কেটিং a to z

ডিজিটাল মার্কেটিং এর একটি উদাহরণ

ধরুন আপনার একটি ফুলের দোকান আছে আপনি যাচ্ছেন ডিজিটাল মার্কেটিং করতে তাহলে আপনাকে কি করতে হবে?

  • আপনার এক বা একের অধি ওয়েবসাইট হবে
  • প্রডাক্ট থাকতে হবে
  • ওয়েবসাইট পরিচালনা করা জানতে হবে
  • যেমন:
    • ফটো এডিট
    • এস ই ও
    • কন্টেন্ট রাইটিং
    • এইচটিএমএল & সিএসএস
    • ইত্যাদি

আরো পড়ুন: ফেসবুকে লাইক দিয়ে টাকা ইনকাম

এরপর আপনার প্রোডাক্টটি দেশে এবং দেশের বাইরে অনেক গ্রাহকের কাছে পৌঁছে যাবে তখন তার আপনার কাছে সেই প্রোডাক্টটি ক্রয় করবে এই ক্রয় এবং বিক্রয় এই দুটির মাঝে রয়েছে ডিজিটাল মার্কেটিং a to z ।

ডিজিটাল মার্কেটিং করার জন্য ওয়েবসাইট

আমরা এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় ভ্রমণের জন্য একটি গাড়ির প্রয়োজন। ঠিক তেমনি আমাদের সেবা অন্য জনের কাছে পৌঁছাতে একটি যোগাযোগ মাধ্যম প্রয়োজন।

জনপ্রিয় ওয়েবসাইটগুলো হলোঃ

  • Google
  • facebook
  • youtube
  • Pinterest
  • Twitter
  • LinkedIn
  • Quora

এই ওয়েবসাইটগুলোনে আপনার একটি করে অ্যাকাউন্ট থাকতে হবে সেখানে আপনার প্রোডাক্টের প্রচারের জন্য কাজ করবেন। প্রতিটা ওয়েবসাইটে অ্যাকাউন্ট থাকতে হবে এরকমটা না আপনার চাহিদা অনুযায়ী।

ডিজিটাল মার্কেটিং এ ব্যবসা সফল

সত্যি কথা বলতে গেলে, আধুনিক প্রযুক্তির উপযোগিতা এবং বাংলাদেশের বৃহত্তম আনুষ্ঠানিক ডিজিটাল ব্যবস্থার উপস্থাপন এর জন্য ব্যবসা ডিজিটাল মার্কেটিং প্রভাব অতুলনীয়।

ডিজিটাল মার্কেটিং হলো ব্যবসা ও সাধারণত বিপণন কার্যক্রম সম্পন্ন করার জন্য ইন্টারনেট এবং অন্যান্য ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করা। যে কোন ব্যবসা এর জন্য ডিজিটাল মার্কেটিং প্রভাবশালী হওয়ায় এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

ডিজিটাল মার্কেটিং এর মাধ্যমে আপনি ব্যবসার পণ্য বা পরিষেবা একটি ব্রহ্মাণ্ডিক পাবলিসিটি দিতে পারেন, যা বিদ্যমান এবং নতুন গ্রাহকদের দেখানোর সুযোগ করে।

আরো পড়ুন: জিমেইল পাসওয়ার্ড কিভাবে দেখবো

কিছু ডিজিটাল মার্কেটিং প্রচারণার উদাহরণ হলো -

  • ওয়েবসাইট বা ব্লগ প্রচার করা। একটি উন্নয়নশীল ওয়েবসাইট বা ব্লগ সম্প্রসারণ এবং ব্র্যান্ড উন্নয়নে সহায়তা করতে পারে।
  • সামাজিক মাধ্যম মার্কেটিং প্রচার করা। ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, টুইটার এবং লিংকডইন সহ সামাজিক মাধ্যম সম্প্রসারণ করতে পারে এবং গ্রাহকদের সাথে সংযোগ স্থাপন করতে পারে।
  • এসইও এবং সিএসএস প্রচার করা। সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন এবং সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং (এসইও এবং সিএসএস) ব্যবস

ডিজিটাল মার্কেটিং a to z পরিকল্পনা

একটি পূর্ণাঙ্গ মার্কেটিং পরিকল্পনা গড়ে তোলা হলে নিম্নলিখিত ধাপগুলি অনুসরণ করা উচিত:

ধাপ ১: লক্ষ্য নির্ধারণ করুন

মার্কেটিং পরিকল্পনার প্রথম ধাপ হলো লক্ষ্য নির্ধারণ করা। আপনার ব্যবসার উদ্দেশ্যগুলি স্পষ্ট করে নিন এবং সেই লক্ষ্যগুলির উপর ভিত্তি করে মার্কেটিং পরিকল্পনা তৈরি করুন।

ধাপ ২: পাবলিক স্পষ্টতা এবং পর্যালোচনা

আপনার সর্বস্তরের পাবলিক স্পষ্টতা এবং পর্যালোচনা করুন। আপনার লক্ষ্যগুলি সম্পর্কে সঠিক ধর্মপ্রচার করুন এবং ব্যবসার লক্ষ্যগুলি পূরণে পাবলিকের সমর্থন পেতে সঠিক প্রচেষ্টা নিন।

ধাপ ৩: পরিবেশনা ও মাধ্যম নির্বাচন

আপনার পণ্য বা পরিষেবা কে কিভাবে প্রদর্শন করবেন এবং কোন মাধ্যমে মার্কেটিং করবেন তা নির্বাচন করুন।

ধাপ ৪: স্বচ্ছতা এবং বিক্রয় প্রস্তুতি

আপনার পণ্য বা পরিষেবার জন্য স্বচ্ছতা এবং বিক্রয় প্রস্তুতি সুনিশ্চিত করুন। আপনার পণ্য বা পরিষেবার স্বচ্ছতা ও গুণমান পরীক্ষা করে নিশ্চিত হোন এবং কাস্টমারদের জন্য উপযোগী বিক্রয় প্রস্তুতি করুন।

ধাপ ৫: বিপণন পরিচালনা এবং উন্নয়ন

আপনার বিপণন পরিচালনা এবং উন্নয়নের পরিকল্পনা করুন। আপনি আপনার পণ্য বা পরিষেবার জন্য সঠিক মার্কেটিং প্ল্যান তৈরি করে আপনার উদ্যোগকে আরও জনপ্রিয় করতে পারেন।

ধাপ ৬: সংগঠন এবং সমর্থন

আপনার প্রতিষ্ঠান এবং আপনার কর্মীদের সংগঠন এবং সমর্থনের পরিকল্পনা করুন।

ডিজিটাল মার্কেটিং পরিচালনা করার জন্য যে বিষয়গুলো জানা প্রয়োজন

ডিজিটাল মার্কেটিং পরিচালনা করার জন্য কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিম্নরূপঃ

  • ডিজিটাল মার্কেটিং সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান ও সম্প্রতি চলমান ট্রেন্ড জানা প্রয়োজন।
  • ইনবাউন্ড মার্কেটিং ও আউটবাউন্ড মার্কেটিং কী জিনিস তা সম্পর্কে জানা প্রয়োজন।
  • স্বচ্ছতা, স্বচ্ছতা এবং স্বচ্ছতা উন্নয়নের বিষয়গুলি জানা প্রয়োজন।
  • কীভাবে একটি ডিজিটাল মার্কেটিং প্ল্যান তৈরি করতে হয় তা জানা প্রয়োজন।
  • সম্পর্কিত ডিজিটাল মার্কেটিং টুলস এবং তাদের ব্যবহার জানা প্রয়োজন, যেমন সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন (SEO), পেই-পার-ক্লিক (PPC), সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং, এবং ইমেল মার্কেটিং।
  • বিভিন্ন মার্কেটিং ক্যাম্পেইন পরিচালনা করার পরিকল্পনা করা এবং বিভিন্ন মার্কেটিং ক্যাম্পেইন চালানো।

অতিরিক্ত জ্ঞান প্রায়োজনীয় বিষয়গুলি নিম্নলিখিত হতে পারে:

  1. ডিজিটাল মার্কেটিং সংক্রান্ত অনুপ্রাণিত মানুষ চাকরি করার সময়ে যে ধরণের দক্ষতা ও দক্ষতার সেট প্রয়োজন, তা জানা প্রয়োজন।
  2. ওয়েবসাইট ডেভেলপমেন্ট, ওয়েবসাইট অপটিমাইজেশন, এবং ওয়েবসাইট ডিজাইনের জ্ঞান প্রয়োজন।
  3. সামাজিক মাধ্যম বিপ্লব, কনটেন্ট মার্কেটিং, ভাইরাল মার্কেটিং, সোশ্যাল মিডিয়া প্রচার এবং এই মাধ্যমে গ্রাহকদের সংগ্রহপ্রাপ্তি করার প্রয়োজনীয় জ্ঞান।
  4. আপনার কাছে যোগাযোগ স্থাপনের জন্য কীভাবে ওয়েবসাইট ট্রাফিক বৃদ্ধি করতে হয় এবং আপনার কাছে যোগাযোগ তথ্য উপস্থাপন করতে হয় তা জানা প্রয়োজন।
  5. ডিজিটাল মার্কেটিং সংক্রান্ত মূলভূত ডেটা এনালাইসিস এবং মার্ক।

আরো পড়ুন: ডিজিটাল মার্কেটিং এ কি কি শিখানো হয়।

এইক্ষেত্রে আরও কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো নিম্নরূপঃ

  • ডিজিটাল মার্কেটিং ক্যাম্পেইনের ফলন এবং পরিমাপক মান নির্ধারণের প্রয়োজনীয় সাধারণ কৌশল ও টুলস জ্ঞান।
  • মার্কেটিং অটোমেশন টুলস এবং ক্যাম্পেইন ম্যানেজমেন্ট প্ল্যাটফর্মের ব্যবহার জানা প্রয়োজন।
  • মার্কেটিং ক্যাম্পেইন এর জন্য প্রয়োজনীয় বিভিন্ন কনটেন্ট মার্কেটিং স্ট্রাটেজি এবং প্ল্যানিং।
  • সর্বশেষ ডিজিটাল মার্কেটিং ট্রেন্ড এবং নতুন প্রয়োজনীয় প্ল্যাটফর্ম এবং টুলসের জন্য নতুন সম্প্রতি আবিষ্কৃত প্রযুক্তি সম্পর্কে আপডেট থাকা।
  • মার্কেটিং সংক্রান্ত আনলাইন ব্র্যান্ডিং, পাবলিক রিলেশনস, ওয়েবসাইট রিপুটেশন ম্যানেজমেন্ট, এবং ক্রিসিস ম্যানেজমেন্টের বিষয়গুলি জানা প্রয়োজন।
  • গ্রাহক ব্যবহারকারীর আচরণ ও পছন্দ পর্যবেক্ষণ করার জন্য ওয়েব অ্যানালিটিক্স এবং ডেটা বিশ্লেষণের জ্ঞান।
  • মার্কেটিং বাজেট পরিচালনা এবং রিটার্ন অন ইনভেস্টমেন্ট (ROI) মাপার প্রয়োজনীয় জ্ঞান।
  • ডিজিটাল মার্কেটিং স্ট্রাটেজি পরিচালনার জন্য গ্রাহক সংশ্লিষ্ট মার্কেট রিসার্চ ও কনসামার ইনসাইটস এবং টার্গেট অডিয়েন্স সম্পর্কে জ্ঞান প্রয়োজন।
  • ডিজিটাল মার্কেটিং সংক্রান্ত কানসামার প্রচার ব্যবস্থাপনা, কানসামার ইঞ্জাইন, ওয়েবসাইট রিটারগেটিং, এবং সংশ্লিষ্ট প্রমোশনাল সাধারণ জ্ঞান।
  • ডিজিটাল মার্কেটিং সংক্রান্ত নৈতিক ও কানুনি বিধিমালা জ্ঞান এবং ডেটা গোপনীয়তা এবং আইনগত সম্পর্কে জ্ঞান প্রয়োজন।

শেষ কথা

আশা করি আপনি ডিজিটাল মার্কেটিং a to z একটি স্বচ্ছ ধারণা পেয়েছেন কিভাবে আপনার ব্যবসা কে আরো উন্নত করবেন কিংবা নিজেই ডিজিটাল মার্কেটিং শিখে উপার্জনের রাস্তা বের করবেন। আপনার কিছু মন্তব্য থাকলে কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করুন।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

আর আইটি ফার্মের নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url